ঢাকা ০৬:০২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নলছিটিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বই উৎসব পালিত

আমির হোসেন, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির নলছিটিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বই উৎসব ২০২৪ পালিত হয়েছে।সোমবার (১জানুয়ারী) সকাল ১১টায় উপজেলার নান্দিকাঠি মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে শিক্ষা অফিসার শিরিন আক্তারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত থেকে বই উৎসব-২৪’র উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম।

প্রভাষক মোঃ আমির হোসেন ও উপজেলা সহাকারি শিক্ষা অফিসার নুসরাত জাহানের যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নলছিটি থানায় অফিসার ইনচার্য (ওসি) মোঃ মুরাদ আলী ও একাডেমিক সুপারভাইজার মোঃ বদরুল আমিন।

অনান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বিদ্যালয়টির ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী বুশরা, প্রধান শিক্ষক মোঃ ইমদাদুল হক,ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ইকরামুল করিম মিঠু মিয়া প্রমুখ। এসময় উপজেলা ইউআরসিও, সহকারী শিক্ষা অফিসারবৃন্দ, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, অবিভাবক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য নলছিটি উপজেলায় প্রাক প্রাথমিক থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত মোট ৯৩ হাজার ৯’শ ৫০জন শিক্ষার্থী নতুন বই পাবে। দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন বইয়ের ঘ্রাণে আর উল্লাসে মেতে উঠবে প্রায় ৪ কোটি শিক্ষার্থী।

এবার প্রাক-প্রাথমিক, প্রাথমিক, মাধ্যমিক, কারিগরি ও মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন স্তরে ৩ কোটি ৮১ লাখ ২৮ হাজার ৩২৪ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩০ কোটি ৭০ লাখ ৮৩ হাজার ৫১৭টি বই বিতরণ করা হবে।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) সূত্রে জানা গেছে, ২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ৩ কোটি ৮১ লাখ ২৮ হাজার ৩২৪ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৩০ কোটি ৭০ লাখ ৮৩ হাজার ৫১৭ কপি বই ছাপা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৪০০ কোটি টাকা। প্রথম, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য ছাপানো হয়েছে ৫ কোটি ৩৮ লাখ ৩ হাজার ৪২৩ কপি বই। দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির বই সংখ্যা ৩ কোটি ৩৬ লাখ ১ হাজার ২৭৪টি। প্রাক-প্রাথমিকের জন্য ৬১ লাখ ৯৩ হাজার ৮৭৮ কপি বই ছাপা হয়েছে।

ষষ্ঠ শ্রেণিতে মোট বই ৬ কোটি ৪৫ লাখ ৪৮ হাজার ৩০৮ কপি, সপ্তম শ্রেণিতে ৪ কোটি ৪৫ লাখ ৫৭ হাজার কপি, অষ্টম শ্রেণির জন্য ৫ কোটি ৩৪ লাখ ৮৪ হাজার ২৭১ কপি এবং নবম শ্রেণির জন্য ৫ কোটি ৬ লাখ ৮৪ হাজার ৫৭৩ কপি বই ছাপা হচ্ছে। অন্যদিকে, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর (পাঁচটি ভাষায় রচিত) শিশুদের জন্য এবার মোট ২ লাখ ৫ হাজার ৩১ কপি বই ছাপা হচ্ছে। অন্য বইয়ের মধ্যে ৫ হাজার ৭৫২ কপি ‘ব্রেইল’ বই ছাপা হবে। তাছাড়া শিক্ষকদের ৪০ লাখ ৯৬ হাজার ৬২৮টি ‘শিক্ষক সহায়িকা’ দেয়া হবে। দেশের প্রতিটি উপজেলায় ইতোমধ্যে পাঠ্যপুস্তক পাঠানো হয়েছে।

বর্তমান সরকার ২০১০ সাল থেকে এ পর্যন্ত সারা দেশে মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৪৬৪ কোটি ৭৮ লাখ ২৯ হাজার ৮৮৩ কপি বই বিনা মূল্যে বিতরণ করেছে। ২০১৭ সাল থেকে সরকার সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীর শিশুদের তাদের মাতৃভাষায় অধ্যায়নের জন্য চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা, গারো এবং সাদরি ভাষার বই বিতরণের পাশাপাশি অন্ধ শিক্ষার্থীদের মধ্যেও বই বিতরণ করছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ৬শ পিস ইয়াবাসহ ২ মাদক কারবারি গ্রেফতার

নলছিটিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বই উৎসব পালিত

আপডেট : ০৭:২৯:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জানুয়ারী ২০২৪

আমির হোসেন, ঝালকাঠি প্রতিনিধি : ঝালকাঠির নলছিটিতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে বই উৎসব ২০২৪ পালিত হয়েছে।সোমবার (১জানুয়ারী) সকাল ১১টায় উপজেলার নান্দিকাঠি মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে শিক্ষা অফিসার শিরিন আক্তারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত থেকে বই উৎসব-২৪’র উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম।

প্রভাষক মোঃ আমির হোসেন ও উপজেলা সহাকারি শিক্ষা অফিসার নুসরাত জাহানের যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নলছিটি থানায় অফিসার ইনচার্য (ওসি) মোঃ মুরাদ আলী ও একাডেমিক সুপারভাইজার মোঃ বদরুল আমিন।

অনান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বিদ্যালয়টির ৫ম শ্রেণীর ছাত্রী বুশরা, প্রধান শিক্ষক মোঃ ইমদাদুল হক,ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ইকরামুল করিম মিঠু মিয়া প্রমুখ। এসময় উপজেলা ইউআরসিও, সহকারী শিক্ষা অফিসারবৃন্দ, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ, জনপ্রতিনিধি, অবিভাবক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য নলছিটি উপজেলায় প্রাক প্রাথমিক থেকে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত মোট ৯৩ হাজার ৯’শ ৫০জন শিক্ষার্থী নতুন বই পাবে। দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন বইয়ের ঘ্রাণে আর উল্লাসে মেতে উঠবে প্রায় ৪ কোটি শিক্ষার্থী।

এবার প্রাক-প্রাথমিক, প্রাথমিক, মাধ্যমিক, কারিগরি ও মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন স্তরে ৩ কোটি ৮১ লাখ ২৮ হাজার ৩২৪ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩০ কোটি ৭০ লাখ ৮৩ হাজার ৫১৭টি বই বিতরণ করা হবে।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) সূত্রে জানা গেছে, ২০২৪ শিক্ষাবর্ষে ৩ কোটি ৮১ লাখ ২৮ হাজার ৩২৪ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৩০ কোটি ৭০ লাখ ৮৩ হাজার ৫১৭ কপি বই ছাপা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৪০০ কোটি টাকা। প্রথম, চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জন্য ছাপানো হয়েছে ৫ কোটি ৩৮ লাখ ৩ হাজার ৪২৩ কপি বই। দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির বই সংখ্যা ৩ কোটি ৩৬ লাখ ১ হাজার ২৭৪টি। প্রাক-প্রাথমিকের জন্য ৬১ লাখ ৯৩ হাজার ৮৭৮ কপি বই ছাপা হয়েছে।

ষষ্ঠ শ্রেণিতে মোট বই ৬ কোটি ৪৫ লাখ ৪৮ হাজার ৩০৮ কপি, সপ্তম শ্রেণিতে ৪ কোটি ৪৫ লাখ ৫৭ হাজার কপি, অষ্টম শ্রেণির জন্য ৫ কোটি ৩৪ লাখ ৮৪ হাজার ২৭১ কপি এবং নবম শ্রেণির জন্য ৫ কোটি ৬ লাখ ৮৪ হাজার ৫৭৩ কপি বই ছাপা হচ্ছে। অন্যদিকে, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর (পাঁচটি ভাষায় রচিত) শিশুদের জন্য এবার মোট ২ লাখ ৫ হাজার ৩১ কপি বই ছাপা হচ্ছে। অন্য বইয়ের মধ্যে ৫ হাজার ৭৫২ কপি ‘ব্রেইল’ বই ছাপা হবে। তাছাড়া শিক্ষকদের ৪০ লাখ ৯৬ হাজার ৬২৮টি ‘শিক্ষক সহায়িকা’ দেয়া হবে। দেশের প্রতিটি উপজেলায় ইতোমধ্যে পাঠ্যপুস্তক পাঠানো হয়েছে।

বর্তমান সরকার ২০১০ সাল থেকে এ পর্যন্ত সারা দেশে মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৪৬৪ কোটি ৭৮ লাখ ২৯ হাজার ৮৮৩ কপি বই বিনা মূল্যে বিতরণ করেছে। ২০১৭ সাল থেকে সরকার সংখ্যালঘু জাতিগোষ্ঠীর শিশুদের তাদের মাতৃভাষায় অধ্যায়নের জন্য চাকমা, মারমা, ত্রিপুরা, গারো এবং সাদরি ভাষার বই বিতরণের পাশাপাশি অন্ধ শিক্ষার্থীদের মধ্যেও বই বিতরণ করছে।