ঢাকা ০২:৪১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঠাকুরগাঁওয়ে ভোটারদের ভয়ভীতি ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগ- দোষ স্বীকার করে জবাব প্রদান আ’লীগ প্রার্থীর

মাহমুদ আহসান হাবিব, ঠাকুরগাঁও ॥

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঠাকুরগাঁও-১ আসনে আওয়াীলীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক এমপি ও মন্ত্রী রমেশ চন্দ্র সেনের বিরুদ্ধে নির্বাচনী জনসভায় ভোটারদের ভয়ভীতি ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির কাছে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে জবাব দিয়েছেন।

শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ এবং নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যান লুৎফর রহমানের কাছে গিয়ে লিখিত জবাব দিয়েছেন তিনি।

আওয়াীলীগ মনোনীত প্রার্থী রমেশ চন্দ্র সেন তার লিখিত জবাবে দোষ স্বীকার করে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং ভবিষ্যতে এ ধরণের বক্তব্য থেকে বিরত থাকার কথা উল্লেখ করেছেন বলে জানান জেলা নির্বাচন অফিসার মঞ্জুরুল হাসান।

উল্লেখ্য,গত ২০ ডিসেম্বর ঠাকুরগাঁও-১ আসনের নির্বাচনী এলাকা নারগুন পোকাতী সেন্টার হাটে নির্বাচনী জনসভায় ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শণ এবং উস্কানিমূলক বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হলে পরদিন নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি তাঁকে জবাব প্রদানের জন্য তলব করে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ভোটের মাঠের বীরযোদ্ধা অরুণাংশু দত্ত টিটো

ঠাকুরগাঁওয়ে ভোটারদের ভয়ভীতি ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগ- দোষ স্বীকার করে জবাব প্রদান আ’লীগ প্রার্থীর

আপডেট : ০৫:৪৫:৫৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩

মাহমুদ আহসান হাবিব, ঠাকুরগাঁও ॥

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঠাকুরগাঁও-১ আসনে আওয়াীলীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক এমপি ও মন্ত্রী রমেশ চন্দ্র সেনের বিরুদ্ধে নির্বাচনী জনসভায় ভোটারদের ভয়ভীতি ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির কাছে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে জবাব দিয়েছেন।

শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ এবং নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যান লুৎফর রহমানের কাছে গিয়ে লিখিত জবাব দিয়েছেন তিনি।

আওয়াীলীগ মনোনীত প্রার্থী রমেশ চন্দ্র সেন তার লিখিত জবাবে দোষ স্বীকার করে দুঃখ প্রকাশ করেন এবং ভবিষ্যতে এ ধরণের বক্তব্য থেকে বিরত থাকার কথা উল্লেখ করেছেন বলে জানান জেলা নির্বাচন অফিসার মঞ্জুরুল হাসান।

উল্লেখ্য,গত ২০ ডিসেম্বর ঠাকুরগাঁও-১ আসনের নির্বাচনী এলাকা নারগুন পোকাতী সেন্টার হাটে নির্বাচনী জনসভায় ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শণ এবং উস্কানিমূলক বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হলে পরদিন নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি তাঁকে জবাব প্রদানের জন্য তলব করে।