ঢাকা ০৬:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কোম্পানিগঞ্জ ও কবিরহাট উপজেলায় দলীয় কোন্দল এড়াতে দলীয় প্রার্থী দলের দুই উপজেলা সভাপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। তবে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করার ক্ষেত্রে মাধ্যমিক পরীক্ষা, পবিত্র রমজান মাস ও বর্ষাকাল এই তিনটি বিষয় নিয়ে ভাবতে হচ্ছে।
ইসি সূত্র জানায়, আগামী মার্চ থেকে কয়েক ধাপে উপজেলা নির্বাচন করতে চায় ইসি। রোজার আগে মার্চের প্রথম সপ্তাহে এই নির্বাচন করা হতে পারে। রোজার আগে অন্তত একটি ধাপ শেষ করতে চায় ইসি‌ ‌। আগামী সপ্তাহে এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হতে পারে। ইতোমধ্যে ইসি আগামী ৯ মার্চ কুমিল্লা ও ময়মনসিংহ সিটির নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে।
কোম্পানীগঞ্জ ও কবিরহাট উপজেলায় দলীয় কোন্দল এড়াতে দলের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বসুরহাট পৌর মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা কে কোম্পানীগঞ্জে ও কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোহাম্মদ ইব্রাহিম কে কবিরহাট উপজেলায় প্রার্থীর বিষয়ে দলের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে অনেকটাই নিশ্চিত হয়েছেন।
জানা গেছে মির্জা ও হাজী ইব্রাহিম চাড়া নির্বাচন করতে চাইলে দুই উপজেলায় দুই ডজন নেতা নির্বাচন করতে চাইবে। যা নিয়ন্ত্রণ অসম্ভব হবে দলের জন্য।
কোম্পানীগঞ্জে আব্দুল কাদের মির্জার ভাইস চেয়ারম্যান হতে পারেন এমন দুজনের নাম আলোচিত হচ্ছে। তারা হচ্ছেন বিগত ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রিয় দুই ইউপি চেয়ারম্যান। তারা হচ্ছে রামপুরের সাবেক চেয়ারম্যান ইকবাল বাহার চৌধুরী ও চরপার্বতীর সাবেক চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক কামরুল।
মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান হিসেবে আলোচনায় আছেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পারভীন আক্তার মুরাদ এর নাম।
অন্যদিকে কবিরহাট উপজেলায় হাজী ইব্রাহিম এর সাথে ভাইস-চেয়ারম্যান হতে পারেন সাবেক পৌর মেয়র আলা বক্স টিটু। কবিরহাট উপজেলার রাজনৈতিক বিরোধকে সমন্বয় করতে এমনটা চিন্তা করছেন নীতিনির্ধারণী মহল। তবে টিটুর সম্মতি থাকলেই এমনটা হতে পারে।
উল্লেখ্য সারা দেশে উপজেলা পরিষদ আছে ৪৯৫টি। সাধারণত সব উপজেলায় একসঙ্গে নির্বাচন করা হয় না। একাধিক ধাপে এই নির্বাচন করা হয়। এবারও ধাপে ধাপে এই নির্বাচন করার চিন্তা করছে ইসি।
এর আগে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৯ সালে। ওই বছরের মার্চ থেকে শুরু হয়ে পাঁচ ধাপে ৪৫৫টি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন শেষ হয়েছিল জুনে। এর মধ্যে মার্চেই চারটি ধাপের ভোট হয়েছিল। উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ভোট হয় দলীয় প্রতীকে। বিএনপি এই নির্বাচনে অংশ নেয়ার সম্ভাবনা কম বলে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগও এবার দলীয়ভাবে প্রার্থী না দেওয়ার কথা ভাবছে। এটি হলে এবারের নির্বাচন হবে মূলত স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে।
ইসি সূত্র জানায়, আইন অনুযায়ী উপজেলা পরিষদের মেয়াদ পূর্তির আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করতে হয়। এখন ৪৫২টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপযোগী হয়ে আছে। জুনের মধ্যে এসব উপজেলায় নির্বাচন করতে হবে।
কিন্তু ১৫ ফেব্রুয়ারি সারা দেশে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষা। পরীক্ষা শেষ হবে ১২ মার্চ। ১১ মার্চ থেকে পবিত্র রমজান মাস শুরু হতে পারে। সাধারণত এসএসসির মতো পাবলিক পরীক্ষা এবং রমজান মাসে নির্বাচন করা হয় না। অন্যদিকে মে-জুন থেকে শুরু হবে বর্ষাকাল। সব মিলিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের জন্য সুবিধাজনক সময় হবে এপ্রিলের শেষ থেকে মে মাস পর্যন্ত।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নির্বাচন প্রথম ধাপেই হতে পারে। আর করিরহাট উপজেলা নির্বাচন হবে একেবারে শেষ ধাপে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ৫ লাখ টাকা কুড়িয়ে পেয়ে মাইকিং করে ভাইরাল হওয়া সৌরভ গ্রেফতার

কোম্পানিগঞ্জ ও কবিরহাট উপজেলায় দলীয় কোন্দল এড়াতে দলীয় প্রার্থী দলের দুই উপজেলা সভাপতি

আপডেট : ০২:০১:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। তবে নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করার ক্ষেত্রে মাধ্যমিক পরীক্ষা, পবিত্র রমজান মাস ও বর্ষাকাল এই তিনটি বিষয় নিয়ে ভাবতে হচ্ছে।
ইসি সূত্র জানায়, আগামী মার্চ থেকে কয়েক ধাপে উপজেলা নির্বাচন করতে চায় ইসি। রোজার আগে মার্চের প্রথম সপ্তাহে এই নির্বাচন করা হতে পারে। রোজার আগে অন্তত একটি ধাপ শেষ করতে চায় ইসি‌ ‌। আগামী সপ্তাহে এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হতে পারে। ইতোমধ্যে ইসি আগামী ৯ মার্চ কুমিল্লা ও ময়মনসিংহ সিটির নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে।
কোম্পানীগঞ্জ ও কবিরহাট উপজেলায় দলীয় কোন্দল এড়াতে দলের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বসুরহাট পৌর মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা কে কোম্পানীগঞ্জে ও কবিরহাট উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী মোহাম্মদ ইব্রাহিম কে কবিরহাট উপজেলায় প্রার্থীর বিষয়ে দলের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে অনেকটাই নিশ্চিত হয়েছেন।
জানা গেছে মির্জা ও হাজী ইব্রাহিম চাড়া নির্বাচন করতে চাইলে দুই উপজেলায় দুই ডজন নেতা নির্বাচন করতে চাইবে। যা নিয়ন্ত্রণ অসম্ভব হবে দলের জন্য।
কোম্পানীগঞ্জে আব্দুল কাদের মির্জার ভাইস চেয়ারম্যান হতে পারেন এমন দুজনের নাম আলোচিত হচ্ছে। তারা হচ্ছেন বিগত ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রিয় দুই ইউপি চেয়ারম্যান। তারা হচ্ছে রামপুরের সাবেক চেয়ারম্যান ইকবাল বাহার চৌধুরী ও চরপার্বতীর সাবেক চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক কামরুল।
মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান হিসেবে আলোচনায় আছেন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পারভীন আক্তার মুরাদ এর নাম।
অন্যদিকে কবিরহাট উপজেলায় হাজী ইব্রাহিম এর সাথে ভাইস-চেয়ারম্যান হতে পারেন সাবেক পৌর মেয়র আলা বক্স টিটু। কবিরহাট উপজেলার রাজনৈতিক বিরোধকে সমন্বয় করতে এমনটা চিন্তা করছেন নীতিনির্ধারণী মহল। তবে টিটুর সম্মতি থাকলেই এমনটা হতে পারে।
উল্লেখ্য সারা দেশে উপজেলা পরিষদ আছে ৪৯৫টি। সাধারণত সব উপজেলায় একসঙ্গে নির্বাচন করা হয় না। একাধিক ধাপে এই নির্বাচন করা হয়। এবারও ধাপে ধাপে এই নির্বাচন করার চিন্তা করছে ইসি।
এর আগে পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ২০১৯ সালে। ওই বছরের মার্চ থেকে শুরু হয়ে পাঁচ ধাপে ৪৫৫টি উপজেলা পরিষদের নির্বাচন শেষ হয়েছিল জুনে। এর মধ্যে মার্চেই চারটি ধাপের ভোট হয়েছিল। উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ভোট হয় দলীয় প্রতীকে। বিএনপি এই নির্বাচনে অংশ নেয়ার সম্ভাবনা কম বলে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগও এবার দলীয়ভাবে প্রার্থী না দেওয়ার কথা ভাবছে। এটি হলে এবারের নির্বাচন হবে মূলত স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে।
ইসি সূত্র জানায়, আইন অনুযায়ী উপজেলা পরিষদের মেয়াদ পূর্তির আগের ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করতে হয়। এখন ৪৫২টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপযোগী হয়ে আছে। জুনের মধ্যে এসব উপজেলায় নির্বাচন করতে হবে।
কিন্তু ১৫ ফেব্রুয়ারি সারা দেশে শুরু হচ্ছে মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষা। পরীক্ষা শেষ হবে ১২ মার্চ। ১১ মার্চ থেকে পবিত্র রমজান মাস শুরু হতে পারে। সাধারণত এসএসসির মতো পাবলিক পরীক্ষা এবং রমজান মাসে নির্বাচন করা হয় না। অন্যদিকে মে-জুন থেকে শুরু হবে বর্ষাকাল। সব মিলিয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের জন্য সুবিধাজনক সময় হবে এপ্রিলের শেষ থেকে মে মাস পর্যন্ত।
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নির্বাচন প্রথম ধাপেই হতে পারে। আর করিরহাট উপজেলা নির্বাচন হবে একেবারে শেষ ধাপে।