ঢাকা ০৫:০০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চোর আটকের পর বিপাকে ভুক্তভোগী

স্টাফ রিপোর্টার ঃ

ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার আকচা ইউনিয়ন এর মুনশী পাড়া গ্রামে চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা খেয়ে গনধোলাই অতঃপর বিপাকে ভুক্তভোগী।

ঘটনার বিবরণে জানাযায়, ১১ জানুয়ারী দিবাগত রাত অনুমান ১টায় আবুল ওরফে জাহাঙ্গীর, হরি ও অজ্ঞাতনামা আরেকজন মোট তিনজনে মুন্সি পাড়া গ্রামের ঝন্টু মিয়ার বাড়িতে চুরি করতে গেলে স্থানীয় জনতার হাতে আটক হয় এবং জনগণের গণধোলাইয়ের শিকার হয়। পরে স্থানীয়রা থানায় সংবাদ দেওয়ার পর পুলিশের একটি টিম রাতে এই ঘটনা স্থলে যাওয়ার পর অবস্থার বেগতিক দেখে আসামিদের আটক না করে উল্টো ভুক্তভোগী ঝন্টু মিয়াকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভর্তি করে চিকিৎসা করার পরামর্শ দেয়।

এমতাবস্থায় চোরদের হাসপাতালে ভর্তি করে দিবারাত্রি পাহারা দিচ্ছেন বিগত তিনদিন যাবত ভুক্তভোগী ঝন্টু মিয়া।

এমন ঘটনায় অজ্ঞাত কারনে পুলিশ মামলা না নেয়ায় স্থানীয়দের মাঝে পুলিশের প্রতি বেশ ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরে স্থানীয় রাজনৈতিক জনপ্রতিনিধিগণ খানার কর্তব্যরত অফিসার ইনচার্জদের সাথে যোগাযোগ করার পরেও কোন সদুত্তর মিলেনি বলে জানান স্থানীয়রা।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ৫ লাখ টাকা কুড়িয়ে পেয়ে মাইকিং করে ভাইরাল হওয়া সৌরভ গ্রেফতার

চোর আটকের পর বিপাকে ভুক্তভোগী

আপডেট : ১২:০০:২২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার ঃ

ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার আকচা ইউনিয়ন এর মুনশী পাড়া গ্রামে চুরি করতে গিয়ে জনতার হাতে ধরা খেয়ে গনধোলাই অতঃপর বিপাকে ভুক্তভোগী।

ঘটনার বিবরণে জানাযায়, ১১ জানুয়ারী দিবাগত রাত অনুমান ১টায় আবুল ওরফে জাহাঙ্গীর, হরি ও অজ্ঞাতনামা আরেকজন মোট তিনজনে মুন্সি পাড়া গ্রামের ঝন্টু মিয়ার বাড়িতে চুরি করতে গেলে স্থানীয় জনতার হাতে আটক হয় এবং জনগণের গণধোলাইয়ের শিকার হয়। পরে স্থানীয়রা থানায় সংবাদ দেওয়ার পর পুলিশের একটি টিম রাতে এই ঘটনা স্থলে যাওয়ার পর অবস্থার বেগতিক দেখে আসামিদের আটক না করে উল্টো ভুক্তভোগী ঝন্টু মিয়াকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভর্তি করে চিকিৎসা করার পরামর্শ দেয়।

এমতাবস্থায় চোরদের হাসপাতালে ভর্তি করে দিবারাত্রি পাহারা দিচ্ছেন বিগত তিনদিন যাবত ভুক্তভোগী ঝন্টু মিয়া।

এমন ঘটনায় অজ্ঞাত কারনে পুলিশ মামলা না নেয়ায় স্থানীয়দের মাঝে পুলিশের প্রতি বেশ ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরে স্থানীয় রাজনৈতিক জনপ্রতিনিধিগণ খানার কর্তব্যরত অফিসার ইনচার্জদের সাথে যোগাযোগ করার পরেও কোন সদুত্তর মিলেনি বলে জানান স্থানীয়রা।