ঢাকা ০৫:২৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল গণির ইন্তেকাল:এলাকায় শোকের ছায়া

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:-

চট্টগ্রাম মহানগরীর পতেঙ্গা থানাধীন ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের বক্স আলী বাড়ি নিবাসী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল গণি (৭০) আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। বুধবার (১০ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ৩টায় নিজ বাসভবনে তিনি ইন্তেকাল করেছেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে, ৪ মেয়ে, নাতি-নাতনীসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। আজ বাদে জোহর মাইজপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ মাঠে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজা শেষে তাকে জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবদুল্লাহ খায়রুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে পতেঙ্গা থানা পুলিশের একটি দল রাষ্ট্রীয় সম্মান ‘গার্ড অব অনার’ দেন। পরে মাইজপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে মরহুমের মরদেহ দাফন করা হয়।জানাজায় অংশ নেন- মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহমদ, যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহিদ হোসেন, সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আহমদ এলএমজি, পতেঙ্গা থানার কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাগির হোসেন, পতেঙ্গা ৪১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফাহিম উদ্দিন, জাহিদ আহমদ, আবদুস ছবুর, খায়রুল ইসলাম, আবুল কালাম, জানে আলম, আবদুর নুর, আবদুল মাবুদ, সন্তান কমান্ডের সদস্য মো. মুছা, মো. আজম প্রমুখ।
উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে সাড়া দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মো. আবদুল গণি।
এদিকে তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহমদ, ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদুল হক চৌধুরী সৈয়দ, সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, পতেঙ্গা থানা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাগির হোসেনসহ সংসদ নেতৃবৃন্দ।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

পলাশে এনা-কাভার্ডভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ২ আহত ৬

চট্টগ্রামে বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল গণির ইন্তেকাল:এলাকায় শোকের ছায়া

আপডেট : ১০:২৮:৫৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী ২০২৪

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:-

চট্টগ্রাম মহানগরীর পতেঙ্গা থানাধীন ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের বক্স আলী বাড়ি নিবাসী বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আবদুল গণি (৭০) আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। বুধবার (১০ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ৩টায় নিজ বাসভবনে তিনি ইন্তেকাল করেছেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে, ৪ মেয়ে, নাতি-নাতনীসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। আজ বাদে জোহর মাইজপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ মাঠে মরহুমের নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজা শেষে তাকে জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবদুল্লাহ খায়রুল ইসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে পতেঙ্গা থানা পুলিশের একটি দল রাষ্ট্রীয় সম্মান ‘গার্ড অব অনার’ দেন। পরে মাইজপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে মরহুমের মরদেহ দাফন করা হয়।জানাজায় অংশ নেন- মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহমদ, যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহিদ হোসেন, সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আহমদ এলএমজি, পতেঙ্গা থানার কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাগির হোসেন, পতেঙ্গা ৪১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফাহিম উদ্দিন, জাহিদ আহমদ, আবদুস ছবুর, খায়রুল ইসলাম, আবুল কালাম, জানে আলম, আবদুর নুর, আবদুল মাবুদ, সন্তান কমান্ডের সদস্য মো. মুছা, মো. আজম প্রমুখ।
উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহবানে সাড়া দিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম মো. আবদুল গণি।
এদিকে তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহমদ, ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদুল হক চৌধুরী সৈয়দ, সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, পতেঙ্গা থানা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাগির হোসেনসহ সংসদ নেতৃবৃন্দ।