ঢাকা ০৫:১৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঠাকুরাঁওয়ে হয়রানির অভিযোগে স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচন পরবর্তী সংবাদ সম্মেলন

মাহমুদ আহসান হাবিব, ঠাকুরগাঁও ॥

হয়রানি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে ঠাকুরগাঁওয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যক্ষ তহমিনা আক্তার মোল্লা। তিনি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ঈগল প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করেছেন।

মঙ্গলবার বিকেলে শহরের আশ্রম পাড়ায় তহমিনা আক্তার মোল্লার নিজ বাস ভবনে এ সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে তহমিনা জানান, র্দীর্ঘ আইনী লড়াই করে সুপ্রিম কোর্টে আপিল করে গত ২৮/১২/২০২৩ ইং দারিখে আমি আমার প্রার্থীতা ফিরে পাই এবং ৩১ তারিখে বিকেল ৪ টার সময় ঠাকুরগাঁও রিটার্নিং কর্মকর্তা আমাকে ঈগল প্রতিক প্রদান করেনও নির্বাচনী প্রচারনার অনুমতি দেন। এর আগে আমার প্রার্থিতা বাতিল করে আমার মূল্যবান সময় নষ্ট করা হয়েছে। এটা উদ্দেশ্য প্রনোদিতভাবেই করা হয়েছে বলে আমি মনে করি।
গত ২৮ ডিসেম্বর এর আগে ঠাকুরগাঁও ১ আসনে নির্বাচনী প্রাণ বা কোন আমেজ ছিলনা। আমার প্রার্থীতা ফিরে পাবার পরই এ চিত্র পরিবর্তন হয়েছে এবং ভাটাররা ভোট কেন্দ্রমূখী হয়েছে। তবে জাতীয় নির্বাচনের প্রচারনার জন্য ৪ দিন সময় অনেক কম বলে আমি মনে করি। আমাকে হেয় ও আমাকে ক্ষতিগ্রস্থ করার জন্যই আমার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছিল বলে আমি মনে করি।

শেষে তিনি তার প্রতি মৌলিক অধিকার হরণ ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে সাংবাদিকদের অভিযোগ করেন। এসময় জেলার বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিরা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ৫ লাখ টাকা কুড়িয়ে পেয়ে মাইকিং করে ভাইরাল হওয়া সৌরভ গ্রেফতার

ঠাকুরাঁওয়ে হয়রানির অভিযোগে স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচন পরবর্তী সংবাদ সম্মেলন

আপডেট : ০৭:২৬:০৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪

মাহমুদ আহসান হাবিব, ঠাকুরগাঁও ॥

হয়রানি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ এনে ঠাকুরগাঁওয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যক্ষ তহমিনা আক্তার মোল্লা। তিনি দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ঈগল প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করেছেন।

মঙ্গলবার বিকেলে শহরের আশ্রম পাড়ায় তহমিনা আক্তার মোল্লার নিজ বাস ভবনে এ সংবাদ সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে তহমিনা জানান, র্দীর্ঘ আইনী লড়াই করে সুপ্রিম কোর্টে আপিল করে গত ২৮/১২/২০২৩ ইং দারিখে আমি আমার প্রার্থীতা ফিরে পাই এবং ৩১ তারিখে বিকেল ৪ টার সময় ঠাকুরগাঁও রিটার্নিং কর্মকর্তা আমাকে ঈগল প্রতিক প্রদান করেনও নির্বাচনী প্রচারনার অনুমতি দেন। এর আগে আমার প্রার্থিতা বাতিল করে আমার মূল্যবান সময় নষ্ট করা হয়েছে। এটা উদ্দেশ্য প্রনোদিতভাবেই করা হয়েছে বলে আমি মনে করি।
গত ২৮ ডিসেম্বর এর আগে ঠাকুরগাঁও ১ আসনে নির্বাচনী প্রাণ বা কোন আমেজ ছিলনা। আমার প্রার্থীতা ফিরে পাবার পরই এ চিত্র পরিবর্তন হয়েছে এবং ভাটাররা ভোট কেন্দ্রমূখী হয়েছে। তবে জাতীয় নির্বাচনের প্রচারনার জন্য ৪ দিন সময় অনেক কম বলে আমি মনে করি। আমাকে হেয় ও আমাকে ক্ষতিগ্রস্থ করার জন্যই আমার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছিল বলে আমি মনে করি।

শেষে তিনি তার প্রতি মৌলিক অধিকার হরণ ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে সাংবাদিকদের অভিযোগ করেন। এসময় জেলার বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিরা উপস্থিত ছিলেন।