ঢাকা ০৪:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পলাশে নিখোঁজের ৪ দিন পর সেফটি ট্যাংকি থেকে শিশুর মরদহ উদ্ধার,আটক ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক,

নরসিংদীর পলাশে নিখোঁজের চারদিন পর মাইশা আক্তার নামে সাড়ে ৩ বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ জুন) সকালে উপজেলার ডাংগা ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামের নিজ বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে র‍্যাব-১১।

এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে র‍্যাব। নিহত মাইশা আক্তার জয়নগর গ্রামের মেহেদী হাসানের মেয়ে। সে গত শুক্রবার (২১ জুন) থেকে নিখোঁজ ছিল। আটককৃতরা হলো, কুষ্টিয়ার কুমারখালী এলাকার জালাল শেখ, তার স্ত্রী মাহফুজা শেখ ও ছেলে বিল্লাল শেখ। তারা সবাই মেহেদী হাসানের বাড়ির ভাড়াটিয়া।

ডাংগা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার বেলায়েত হোসেন ও পলাশ থানা পুলিশ জানায়, জয়নগর গ্রামের শিলবাড়ির মোড়ের মেহেদী হাসানের মেয়ে মাইশা শুক্রবার বিকেল থেকে নিখোঁজ ছিল। পরে তাকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে এ ঘটনায় রাতেই পলাশ থানায় জিডি করে মাইশার বাবা। ঘটনার চারদিন পর মঙ্গলবার ভোরে মেহেদী হাসানের ভাড়াটিয়া জামাল শেখ, স্ত্রী মাহফুজা শেখ ও ছেলে বিল্লাল শেখকে আটক করে র‍্যাব। পরে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে নিজ বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে মাইশার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

পলাশ থানার ওসি (তদন্ত) মো. জসিম উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় ডাংগা এলাকা থেকে তিনজনকে আটক করেছে র‍্যাব। তাদের পলাশ থানায় হস্তান্তর করা হবে। তবে ওই শিশুকে কি কারণে হত্যা করা হয়েছে তা আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলেও জানান তিনি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ৫ লাখ টাকা কুড়িয়ে পেয়ে মাইকিং করে ভাইরাল হওয়া সৌরভ গ্রেফতার

পলাশে নিখোঁজের ৪ দিন পর সেফটি ট্যাংকি থেকে শিশুর মরদহ উদ্ধার,আটক ৩

আপডেট : ১১:৩৬:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪

নিজস্ব প্রতিবেদক,

নরসিংদীর পলাশে নিখোঁজের চারদিন পর মাইশা আক্তার নামে সাড়ে ৩ বছরের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৫ জুন) সকালে উপজেলার ডাংগা ইউনিয়নের জয়নগর গ্রামের নিজ বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে র‍্যাব-১১।

এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে র‍্যাব। নিহত মাইশা আক্তার জয়নগর গ্রামের মেহেদী হাসানের মেয়ে। সে গত শুক্রবার (২১ জুন) থেকে নিখোঁজ ছিল। আটককৃতরা হলো, কুষ্টিয়ার কুমারখালী এলাকার জালাল শেখ, তার স্ত্রী মাহফুজা শেখ ও ছেলে বিল্লাল শেখ। তারা সবাই মেহেদী হাসানের বাড়ির ভাড়াটিয়া।

ডাংগা ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার বেলায়েত হোসেন ও পলাশ থানা পুলিশ জানায়, জয়নগর গ্রামের শিলবাড়ির মোড়ের মেহেদী হাসানের মেয়ে মাইশা শুক্রবার বিকেল থেকে নিখোঁজ ছিল। পরে তাকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে এ ঘটনায় রাতেই পলাশ থানায় জিডি করে মাইশার বাবা। ঘটনার চারদিন পর মঙ্গলবার ভোরে মেহেদী হাসানের ভাড়াটিয়া জামাল শেখ, স্ত্রী মাহফুজা শেখ ও ছেলে বিল্লাল শেখকে আটক করে র‍্যাব। পরে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে নিজ বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে মাইশার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

পলাশ থানার ওসি (তদন্ত) মো. জসিম উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় ডাংগা এলাকা থেকে তিনজনকে আটক করেছে র‍্যাব। তাদের পলাশ থানায় হস্তান্তর করা হবে। তবে ওই শিশুকে কি কারণে হত্যা করা হয়েছে তা আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলেও জানান তিনি।