ঢাকা ০৬:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

স্বল্প সময়ে ঠাকুরগাঁও-০২ আসনের ভোটারদের মন জয় করেছেন আলী আসলাম জুয়েল

শাওন আমিন ।

ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার কান্ধাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে আজ ২৫ ডিসেম্বর মাগরিবের পর খুলি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ৭ জানুয়ারি। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। এরই মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশে বইছে হাওয়া ও নির্বাচনী আমেজ । মানুষের কন্ঠে উচ্চারিত হচ্ছে ট্রাক আর ট্রাকের স্লোগান।ঠাকুরগাঁও-০২(বালিয়াডাঙ্গী,ধর্মগড়, কাশিপুর ও হরিপুর) আসনের রাস্তাঘাটে সবর্ত্রই ঝুলছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর ট্রাকের পোস্টার।
এলাকার রাস্তায় হাঁটলেই চোখে পড়ছে চারদিকে ঝুলিয়ে রাখা সাদাকালো নৌকা ও ট্রাকের পোস্টার। আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা যে শুরু হয়ে গেছে, তা ঠাকুরগাঁও-০২ আসনের হরিপুর উপজেলার অলিগলির রাস্তার সাজসজ্জাতেই বোঝা যাচ্ছে।
হরিপুর উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী অধ্যক্ষ মোঃ মাজহারুল ইসলাম সুজন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক সফল উপজেলা চেয়ারম্যান আলী আসলাম জুয়েল ও জাতীয় পার্টির নুরুন নাহার বেগম এর পোস্টার চোখে পড়ছে ।
হরিপুর উপজেলার সদরে মাথার ওপরে ঝুলতে দেখা যায় নৌকা,ট্রাক ও লাঙ্গল মার্কার পোস্টার। এই এলাকায় প্রার্থীরা প্রতীক বরাদ্দের পরই ঝুলিয়েছেন তাদের নির্বাচনী প্রতীকের পোস্টার।

গত ১৮ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই প্রচারে নেমেছেন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীরা। ডিসেম্বর থেকেই প্রচার প্রচারণা জোরদার করেছেন।
এরই মধ্যে স্বল্প সময়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী, ট্রাকের পোস্টার ঝুলিয়ে ও প্রচার-প্রচারণায় মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি।
স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক সফল উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আলী আসলাম জুয়েল বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে তার নির্বাচনী এলাকায় পথসভা ও জনসভা করছেন। বিভিন্ন স্থানে খুলি বৈঠক ও অফিস গড়ে তুলেছেন।
তবে এবারের নির্বাচনে বিএনপিসহ বেশ কয়েকটি দল না থাকায় নির্বাচনী প্রচারণার মাঠে আওয়ামীলীগের মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী অধ্যক্ষ মোঃ মাজহারুল ইসলাম সুজন,স্বতন্ত্র প্রার্থী আলী আসলাম জুয়েল, ও জাতীয় পার্টির নুরুন নাহার বেগমের নির্বাচনী কার্যক্রম চোখে পড়ছে।
নির্বাচন বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী, সাবেক সফল উপজেলা চেয়ারম্যান আলী আসলাম জুয়েলের সাথে সাক্ষাতকালে তিনি বলেন ,এত স্বল্প সময়ে হরিপুরের মানুষ আমাকে এতো আপন করে নিয়েছেন তা আমি খুলি বৈঠকে উপস্থিত হয়ে বুঝলাম। আমি হরিপুরের মানুষের ভালোবাসায় মুগ্ধ। আমি নির্বাচিত হলে সর্ব প্রথম হরিপুরের মানুষের কল্যাণে কাজ করবো।উপজেলা চেয়ারম্যান থাকাকালীন অনেক উন্নয়ন করেছি। এবার এমপি নির্বাচিত হলে আরো উন্নয়ন করব, বেকারদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ যা করার লাগে আমি তাই করব। সাধারণ মানুষ আমাকে চায়। তাই তিনি আগামী ৭ জানুয়ারি ভোটারদের কেন্দ্রে এসে নিজের মতামত প্রকাশের আহবান জানান তিনি।
তিনি আরও বলেন, ট্রাক মার্কার বিজয় নিশ্চিত জেনে তারা আমাদের নামে বিভিন্ন অপপ্রচার চালাচ্ছে।
প্রচারণার শুরু থেকেই নৌকার প্রার্থী ও তার সমর্থকরা একের পর এক হুমকি ধামকি দিয়ে চলেছে। ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ৬শ পিস ইয়াবাসহ ২ মাদক কারবারি গ্রেফতার

স্বল্প সময়ে ঠাকুরগাঁও-০২ আসনের ভোটারদের মন জয় করেছেন আলী আসলাম জুয়েল

আপডেট : ০৫:২০:৫৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩

শাওন আমিন ।

ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার কান্ধাল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে আজ ২৫ ডিসেম্বর মাগরিবের পর খুলি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ৭ জানুয়ারি। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আর মাত্র কয়েক দিন বাকি। এরই মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশে বইছে হাওয়া ও নির্বাচনী আমেজ । মানুষের কন্ঠে উচ্চারিত হচ্ছে ট্রাক আর ট্রাকের স্লোগান।ঠাকুরগাঁও-০২(বালিয়াডাঙ্গী,ধর্মগড়, কাশিপুর ও হরিপুর) আসনের রাস্তাঘাটে সবর্ত্রই ঝুলছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর ট্রাকের পোস্টার।
এলাকার রাস্তায় হাঁটলেই চোখে পড়ছে চারদিকে ঝুলিয়ে রাখা সাদাকালো নৌকা ও ট্রাকের পোস্টার। আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের প্রচারণা যে শুরু হয়ে গেছে, তা ঠাকুরগাঁও-০২ আসনের হরিপুর উপজেলার অলিগলির রাস্তার সাজসজ্জাতেই বোঝা যাচ্ছে।
হরিপুর উপজেলায় আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী অধ্যক্ষ মোঃ মাজহারুল ইসলাম সুজন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক সফল উপজেলা চেয়ারম্যান আলী আসলাম জুয়েল ও জাতীয় পার্টির নুরুন নাহার বেগম এর পোস্টার চোখে পড়ছে ।
হরিপুর উপজেলার সদরে মাথার ওপরে ঝুলতে দেখা যায় নৌকা,ট্রাক ও লাঙ্গল মার্কার পোস্টার। এই এলাকায় প্রার্থীরা প্রতীক বরাদ্দের পরই ঝুলিয়েছেন তাদের নির্বাচনী প্রতীকের পোস্টার।

গত ১৮ ডিসেম্বর প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই প্রচারে নেমেছেন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীরা। ডিসেম্বর থেকেই প্রচার প্রচারণা জোরদার করেছেন।
এরই মধ্যে স্বল্প সময়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী, ট্রাকের পোস্টার ঝুলিয়ে ও প্রচার-প্রচারণায় মানুষের মনে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি।
স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক সফল উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আলী আসলাম জুয়েল বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে তার নির্বাচনী এলাকায় পথসভা ও জনসভা করছেন। বিভিন্ন স্থানে খুলি বৈঠক ও অফিস গড়ে তুলেছেন।
তবে এবারের নির্বাচনে বিএনপিসহ বেশ কয়েকটি দল না থাকায় নির্বাচনী প্রচারণার মাঠে আওয়ামীলীগের মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী অধ্যক্ষ মোঃ মাজহারুল ইসলাম সুজন,স্বতন্ত্র প্রার্থী আলী আসলাম জুয়েল, ও জাতীয় পার্টির নুরুন নাহার বেগমের নির্বাচনী কার্যক্রম চোখে পড়ছে।
নির্বাচন বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী, সাবেক সফল উপজেলা চেয়ারম্যান আলী আসলাম জুয়েলের সাথে সাক্ষাতকালে তিনি বলেন ,এত স্বল্প সময়ে হরিপুরের মানুষ আমাকে এতো আপন করে নিয়েছেন তা আমি খুলি বৈঠকে উপস্থিত হয়ে বুঝলাম। আমি হরিপুরের মানুষের ভালোবাসায় মুগ্ধ। আমি নির্বাচিত হলে সর্ব প্রথম হরিপুরের মানুষের কল্যাণে কাজ করবো।উপজেলা চেয়ারম্যান থাকাকালীন অনেক উন্নয়ন করেছি। এবার এমপি নির্বাচিত হলে আরো উন্নয়ন করব, বেকারদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিসহ যা করার লাগে আমি তাই করব। সাধারণ মানুষ আমাকে চায়। তাই তিনি আগামী ৭ জানুয়ারি ভোটারদের কেন্দ্রে এসে নিজের মতামত প্রকাশের আহবান জানান তিনি।
তিনি আরও বলেন, ট্রাক মার্কার বিজয় নিশ্চিত জেনে তারা আমাদের নামে বিভিন্ন অপপ্রচার চালাচ্ছে।
প্রচারণার শুরু থেকেই নৌকার প্রার্থী ও তার সমর্থকরা একের পর এক হুমকি ধামকি দিয়ে চলেছে। ভোটারদের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে।