ঢাকা ০২:৩৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পলাশে বৃদ্ধাকে গলা কেটে হত্যা, অভিযুক্ত গ্রেপ্তর ১

হাজী জাহিদ,নরসিংদী,

নরসিংদীর পলাশে চাঞ্চল্যকর দেলোয়ারা বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধাকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত মঞ্জুরুল ইসলাম রিজু (২২) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত মঞ্জুরুল ইসলাম রিজু নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুর এলাকার মাইন উদ্দিন মিয়ার ছেলে।

আজ সোমবার (১ এপ্রিল) সকাল ১১ টায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন নরসিংদী পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গত ২৬ মার্চ পলাশের চরনগরদীতে দেলোয়ারা বেগমকে তার নিজ ঘরে গলা কেটে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার পরপরই রহস্য উদঘাটনে নামে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। পরে গতকাল (৩১ মার্চ) নরসিংদী জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় মঞ্জুরুল ইসলাম রিজুকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর সে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি স্বীকার করেন।

এসময় তিনি আরো জানান,  দোলোয়ারা বেগম এর দুই ছেলে প্রবাসী এবং সে বাড়িতে একা থাকে তাই তার কাছে অনেক টাকা পয়সা থাকবে এমন ধারণা থেকেই সে মঞ্জুরুল ইসলাম রিজু তাকে হত্যা করে। কিন্তু ঘরে টাকা পয়সা না পেয়ে এসময় দোলোয়ারার শরীরে থাকা স্বর্ণের কানের দুল, নাকফুল ও মোবাইল ফোন নিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এঘটনার হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ১টি বটি ও লুণ্ঠিত কানের দুল ও নাকফুল উদ্ধার করা হয়।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ভোটের মাঠের বীরযোদ্ধা অরুণাংশু দত্ত টিটো

পলাশে বৃদ্ধাকে গলা কেটে হত্যা, অভিযুক্ত গ্রেপ্তর ১

আপডেট : ১১:২৯:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ এপ্রিল ২০২৪

হাজী জাহিদ,নরসিংদী,

নরসিংদীর পলাশে চাঞ্চল্যকর দেলোয়ারা বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধাকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত মঞ্জুরুল ইসলাম রিজু (২২) নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত মঞ্জুরুল ইসলাম রিজু নরসিংদী সদর উপজেলার চিনিশপুর এলাকার মাইন উদ্দিন মিয়ার ছেলে।

আজ সোমবার (১ এপ্রিল) সকাল ১১ টায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন নরসিংদী পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গত ২৬ মার্চ পলাশের চরনগরদীতে দেলোয়ারা বেগমকে তার নিজ ঘরে গলা কেটে হত্যা করা হয়। এ ঘটনার পরপরই রহস্য উদঘাটনে নামে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। পরে গতকাল (৩১ মার্চ) নরসিংদী জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় মঞ্জুরুল ইসলাম রিজুকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের পর সে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি স্বীকার করেন।

এসময় তিনি আরো জানান,  দোলোয়ারা বেগম এর দুই ছেলে প্রবাসী এবং সে বাড়িতে একা থাকে তাই তার কাছে অনেক টাকা পয়সা থাকবে এমন ধারণা থেকেই সে মঞ্জুরুল ইসলাম রিজু তাকে হত্যা করে। কিন্তু ঘরে টাকা পয়সা না পেয়ে এসময় দোলোয়ারার শরীরে থাকা স্বর্ণের কানের দুল, নাকফুল ও মোবাইল ফোন নিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে যায়। এঘটনার হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ১টি বটি ও লুণ্ঠিত কানের দুল ও নাকফুল উদ্ধার করা হয়।