ঢাকা ০৪:১০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাধবদীতে হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতাল নয় একটি কসাইখানা ভুল চিকিৎসায় নবজাতক সহ মায়ের মৃত্যু ! তদন্ত কমিটি গঠন

হাজী জাহিদ

নরসিংদী জেলার অলিগলিতে গড়ে উঠেছে ব্যাঙের ছাতার মত প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিক ডায়গনস্টিক সেন্টার প্রায় সবগুলোতেই লাইসেন্স নেই। পাশাপাশি অনেক হাসপাতালে ডিপ্লোমা নার্স নেই ডিউটি ডাক্তার নেই মাঝে মধ্যে মোবাইল কোর্ট হলেও অদৃশ্য কারণে আবারও হাসপাতালগুলো চালু হয় , কায়েম হয়েছে রাম রাজত্ব এ যেন দেখার কেউ নেই ?
মাধবদীতে মা ও নবজাতের মৃত্যু তদন্ত কমিটি গঠন
হাসপাতালে সিজার করাতে এসে ভুল চিকিৎসায়
নবজাতক সহ মায়ের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি
ঘটেছে গত ১৬ মার্চ শনিবার
প্রসূতিকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। বিকেল ৪ টার দিকে সিজারের জন্য সুস্থ্য অবস্থায় হেঁটে ওটিতে যায়
প্রসূতি , ডাক্তার অনুরাধা চক্রবর্তী সিজারের জন্য
হলি ক্রিসেন্ট প্রাইভেট হাসপাতালে। নিহত বিথী রানী সাহা ( ২৮ ) ওটিতে যাওয়ার ১৫/২০ মিনিট পর বেরিয়ে আসে , তিনি কুমিল্লা জেলার হোমনা থানার। হাসপাতালের ম্যানেজার হোমনা থানার দুলালপুর এলাকার বিজয় সাহার স্ত্রীকে জানান রোগীর অবস্থা ভালোনা তাকে বাঁচাতে হলে দ্রুত ঢাকায় নিয়ে যেতে হবে। পরে তাকে তাৎক্ষণিক গাউছিয়া ইউএস-বাংলা মেডিকেলে নিয়ে গেলে মেডিক্যালের ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডাঃ ফারহানা আহমেদ চার দেশে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন এবং চার সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেন। নিহতের প্রতিবেশীরা জানান , দীর্ঘদিন ধরেই মাধবদীর পৌর এলাকার কাশিপুর মহল্লার ভাড়া
বাসায় থেকে একটি প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করতেন নিহত বিথী রানী সাহার স্বামী বিমল সাহা।
তাদের প্রথম সন্তানের আগমনে
ডাক্তারের শরনাপন্ন হন এছাড়া হলি ক্রিসেন্ট প্রাইভেট হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ অনুরাধা চক্রবর্তীর অধীনেই নিয়মিত পরামর্শ নিচ্ছিলেন তারা। গত ১৬ মার্চ শনিবার ছিল সিজার করানোর নির্ধারিত দিন বা তারিখ। সে মোতাবেক বিথীকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সিজার শুরুর আগে হাসপাতালের কর্মরত ডাঃ সাইফুল ইসলাম এনেসতেশিয়া দেবার পরই অচেতন হতে
থাকেন বিথী। পরে অপারেশন রুমেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ল বীথি রানী সাহা। নিহত বিথী রানী সাহার স্বামী বিমল সাহা বলেন , এ ব্যাপারে নরসিংদীর ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডাঃ
এখনো রোগীর পক্ষ থেকে কোনো লিখিত অভিযোগ দেননি। এ বিষয়ে চার সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।
কমিটিতে কনসালটেন্ট, ম্যাডিকেল অফিসারসহ
চারজন ডাক্তার রয়েছেন। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন
পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। অবশ্যই তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মাধ্যমে
যা করনীয় তাঁরা সবই করবেন। যাতে ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।
থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা
জানান , এখনও পর্যন্ত লিখিত কোন অভিযোগ পাওয়া
যায়নি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে । নরসিংদীর মাধবদীতে হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ঘটেছে একাধিক রোগীর মৃত্যু এবং মানববন্ধন হয়েছে নরসিংদীতে। বিথীর ভাই আমাদের এ প্রতিবেদককে জানান , এ হাসপাতালে কোন ডিপ্লোমা নার্স নেই পাশাপাশি ডিউটি ডাক্তার থাকে না । হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ব্যবহার অত্যন্ত খারাপ। নরসিংদীর এক মালিক তাদেরকে মারতে এসেছে এবং সন্ত্রাসী বাহিনী লেলিয়ে দিয়ে অপমান করেছে। অপর দিকে আমাদের এ প্রতিবেদক সরেজমিন হাসপাতালে গেলে হাসপাতালের চেয়ারম্যানকে পাওয়া যায় তিনি বলেন হাসপাতাল চালাতে ১৭ টা লাইসেন্স লাগে তাদের সকল প্রকার লাইসেন্স আছে তারা এগুলো টাঙ্গিয়ে দিয়েছে। রোগী মারা গেছে হাসপাতালে রোগী মরবেই তাদের কিছু করার নেই আপনারা সাংবাদিক অনেক পত্রিকায় লেখালেখি হয়েছে আমাকে কিছুই করতে পারবেন না তিনি অনেক শক্তিশালী এবং তিনি একজন নেতা। এ ব্যাপারে আমাদের এ প্রতিবেদক সাংবাদিক জি এম মতিউর রহমান শাহ চিশতি বলেন , এই হাসপাতালের সেবা ভালো না পাশাপাশি একাধিক রোগী মারা গেছে তার বিরুদ্ধে একাধিক পত্রিকায় একাধিক রিপোর্ট হয়েছে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু দৃষ্টি আকর্ষণ করছন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ভোটের মাঠের বীরযোদ্ধা অরুণাংশু দত্ত টিটো

মাধবদীতে হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতাল নয় একটি কসাইখানা ভুল চিকিৎসায় নবজাতক সহ মায়ের মৃত্যু ! তদন্ত কমিটি গঠন

আপডেট : ১১:৫৬:৫২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৩১ মার্চ ২০২৪

হাজী জাহিদ

নরসিংদী জেলার অলিগলিতে গড়ে উঠেছে ব্যাঙের ছাতার মত প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিক ডায়গনস্টিক সেন্টার প্রায় সবগুলোতেই লাইসেন্স নেই। পাশাপাশি অনেক হাসপাতালে ডিপ্লোমা নার্স নেই ডিউটি ডাক্তার নেই মাঝে মধ্যে মোবাইল কোর্ট হলেও অদৃশ্য কারণে আবারও হাসপাতালগুলো চালু হয় , কায়েম হয়েছে রাম রাজত্ব এ যেন দেখার কেউ নেই ?
মাধবদীতে মা ও নবজাতের মৃত্যু তদন্ত কমিটি গঠন
হাসপাতালে সিজার করাতে এসে ভুল চিকিৎসায়
নবজাতক সহ মায়ের মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি
ঘটেছে গত ১৬ মার্চ শনিবার
প্রসূতিকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। বিকেল ৪ টার দিকে সিজারের জন্য সুস্থ্য অবস্থায় হেঁটে ওটিতে যায়
প্রসূতি , ডাক্তার অনুরাধা চক্রবর্তী সিজারের জন্য
হলি ক্রিসেন্ট প্রাইভেট হাসপাতালে। নিহত বিথী রানী সাহা ( ২৮ ) ওটিতে যাওয়ার ১৫/২০ মিনিট পর বেরিয়ে আসে , তিনি কুমিল্লা জেলার হোমনা থানার। হাসপাতালের ম্যানেজার হোমনা থানার দুলালপুর এলাকার বিজয় সাহার স্ত্রীকে জানান রোগীর অবস্থা ভালোনা তাকে বাঁচাতে হলে দ্রুত ঢাকায় নিয়ে যেতে হবে। পরে তাকে তাৎক্ষণিক গাউছিয়া ইউএস-বাংলা মেডিকেলে নিয়ে গেলে মেডিক্যালের ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডাঃ ফারহানা আহমেদ চার দেশে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন এবং চার সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেন। নিহতের প্রতিবেশীরা জানান , দীর্ঘদিন ধরেই মাধবদীর পৌর এলাকার কাশিপুর মহল্লার ভাড়া
বাসায় থেকে একটি প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করতেন নিহত বিথী রানী সাহার স্বামী বিমল সাহা।
তাদের প্রথম সন্তানের আগমনে
ডাক্তারের শরনাপন্ন হন এছাড়া হলি ক্রিসেন্ট প্রাইভেট হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ অনুরাধা চক্রবর্তীর অধীনেই নিয়মিত পরামর্শ নিচ্ছিলেন তারা। গত ১৬ মার্চ শনিবার ছিল সিজার করানোর নির্ধারিত দিন বা তারিখ। সে মোতাবেক বিথীকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। সিজার শুরুর আগে হাসপাতালের কর্মরত ডাঃ সাইফুল ইসলাম এনেসতেশিয়া দেবার পরই অচেতন হতে
থাকেন বিথী। পরে অপারেশন রুমেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ল বীথি রানী সাহা। নিহত বিথী রানী সাহার স্বামী বিমল সাহা বলেন , এ ব্যাপারে নরসিংদীর ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডাঃ
এখনো রোগীর পক্ষ থেকে কোনো লিখিত অভিযোগ দেননি। এ বিষয়ে চার সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।
কমিটিতে কনসালটেন্ট, ম্যাডিকেল অফিসারসহ
চারজন ডাক্তার রয়েছেন। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন
পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। অবশ্যই তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মাধ্যমে
যা করনীয় তাঁরা সবই করবেন। যাতে ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।
থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা
জানান , এখনও পর্যন্ত লিখিত কোন অভিযোগ পাওয়া
যায়নি। অভিযোগের প্রেক্ষিতে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে । নরসিংদীর মাধবদীতে হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ঘটেছে একাধিক রোগীর মৃত্যু এবং মানববন্ধন হয়েছে নরসিংদীতে। বিথীর ভাই আমাদের এ প্রতিবেদককে জানান , এ হাসপাতালে কোন ডিপ্লোমা নার্স নেই পাশাপাশি ডিউটি ডাক্তার থাকে না । হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ব্যবহার অত্যন্ত খারাপ। নরসিংদীর এক মালিক তাদেরকে মারতে এসেছে এবং সন্ত্রাসী বাহিনী লেলিয়ে দিয়ে অপমান করেছে। অপর দিকে আমাদের এ প্রতিবেদক সরেজমিন হাসপাতালে গেলে হাসপাতালের চেয়ারম্যানকে পাওয়া যায় তিনি বলেন হাসপাতাল চালাতে ১৭ টা লাইসেন্স লাগে তাদের সকল প্রকার লাইসেন্স আছে তারা এগুলো টাঙ্গিয়ে দিয়েছে। রোগী মারা গেছে হাসপাতালে রোগী মরবেই তাদের কিছু করার নেই আপনারা সাংবাদিক অনেক পত্রিকায় লেখালেখি হয়েছে আমাকে কিছুই করতে পারবেন না তিনি অনেক শক্তিশালী এবং তিনি একজন নেতা। এ ব্যাপারে আমাদের এ প্রতিবেদক সাংবাদিক জি এম মতিউর রহমান শাহ চিশতি বলেন , এই হাসপাতালের সেবা ভালো না পাশাপাশি একাধিক রোগী মারা গেছে তার বিরুদ্ধে একাধিক পত্রিকায় একাধিক রিপোর্ট হয়েছে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু দৃষ্টি আকর্ষণ করছন।