ঢাকা ০৩:১০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাণীশংকৈলে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার ৮ নং নন্দুয়ার ইউনিয়ন পরিষদের সচিব দবিরুল ইসলাম (৩৮) কে মোবাইল দিয়ে আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ায় অপরাধে একই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে ।

জানা গেছে ২৫ মার্চ সোমবার দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারী ইউপি সচিব দবিরুলের কাছে সরকারি রাজস্ব আদায়ের জমাকৃত টাকার চেক চাইলে এ নিয়ে তর্ক-বির্তকের এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান তার হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে সচিবের মাথায় আঘাত করেন। এসময় ইউপি সচিবের মাথা ফেটে যায়। ইউপি সচিব বর্তমানে রাণীশংকৈল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

ইউপি সচিব দবিরুল ইসলাম বলেন, চেয়ারম্যান আমার কাছে নিয়ম বহির্ভূতভাবে চেক চায়। আমি সরকারি নিয়মের মধ্যে একাউন্ট পে চেক দিতে চাইলে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে তার হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে। এতে আমার মাথা ফেটে যায়। আমার মাথায় ৩টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। আমি থানায় এজাহার দিয়েছি।
এ বিষয় নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল বারীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

মামলার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে
রাণীশংকৈল থানা অফিসার ইনচার্জ সোহেল রানা বলেন গতকাল রাতে মামলা রুজু করা হয়েছে আসামীকে ধরার জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ভোটের মাঠের বীরযোদ্ধা অরুণাংশু দত্ত টিটো

রাণীশংকৈলে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট : ১১:৪৮:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার ৮ নং নন্দুয়ার ইউনিয়ন পরিষদের সচিব দবিরুল ইসলাম (৩৮) কে মোবাইল দিয়ে আঘাত করে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ায় অপরাধে একই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে ।

জানা গেছে ২৫ মার্চ সোমবার দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারী ইউপি সচিব দবিরুলের কাছে সরকারি রাজস্ব আদায়ের জমাকৃত টাকার চেক চাইলে এ নিয়ে তর্ক-বির্তকের এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান তার হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে সচিবের মাথায় আঘাত করেন। এসময় ইউপি সচিবের মাথা ফেটে যায়। ইউপি সচিব বর্তমানে রাণীশংকৈল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন।

ইউপি সচিব দবিরুল ইসলাম বলেন, চেয়ারম্যান আমার কাছে নিয়ম বহির্ভূতভাবে চেক চায়। আমি সরকারি নিয়মের মধ্যে একাউন্ট পে চেক দিতে চাইলে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে তার হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে। এতে আমার মাথা ফেটে যায়। আমার মাথায় ৩টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। আমি থানায় এজাহার দিয়েছি।
এ বিষয় নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল বারীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

মামলার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে
রাণীশংকৈল থানা অফিসার ইনচার্জ সোহেল রানা বলেন গতকাল রাতে মামলা রুজু করা হয়েছে আসামীকে ধরার জন্য পুলিশ তৎপর রয়েছে।