ঢাকা ০৬:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রাম বোয়াল খালী উপজেলা নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান শ্রমিক নেতা মীর নওশাদ

শাওন আমিন ।।

আসন্ন চট্গ্রামের বোয়ালখালি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান চরখিজিরপুর আওয়ামিলীগের প্রতিষ্টাতা সভাপতি,মরহুম মীর মোহাম্মদের সুযোগ্য পুত্র বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা মোহাম্মদ মীর নওশাদ।তিনি আগামী বোয়াল খালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন ।বিগত দিনে নিজ উদ্যোগে উপজেলার অসহায় দুঃস্থ মানুষদের সহায়তা করে আসছেন তিনি সব সময় অসহায় মানুষের পাশে ছিলেন।আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে এখন পর্যন্ত সম্ভাব্য কয়েকজন প্রার্থীর মধ্যে সাধারণ ভোটারদের মাঝে আলোচনার রয়েছেন তিনি।তাছাড়া তিনি নিজ এলাকায়একমাত্র সম্ভাব্য প্রার্থী থাকায় অন্য সবার চাইতে ভোটের মাঠে সুবিধাজনক অবস্থানে থাকবেন বলে ধারণা করছেন সাধারণ জনগণ।বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা মোহাম্মদ মীর নওশাদের জীবনবৃত্তান্তে দেখা যায়, বোয়ালখালী উপজেলার সাবেক ০২ নং পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের ‘সি’ ওয়ার্ড তথা- গ্রাম- চরখিজিরপুর বর্তমানে প্রস্তাবিত চরখিজিরপুর ইউনিয়ন তার জম্নস্হান,চট্টগ্রাম সিটি কলেজ হতে শিক্ষা জীবন সমাপ্তি করে জড়িয়ে পরেন সামাজিক কর্মকান্ডে। তিনি

বিগত ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে ০২ নং পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ছিলেন, চেয়ারম্যানের মৃত্যু জনিত কারণে পূনরায় ২০০৩ সালে অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনেও চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ছিলেন কিন্তু ফলাফলের বিষয়টি সংগত কারণে তিনি নির্বাচিত না হলেও বিষয়টা ০২ পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়নের জনসাধারণ ও বোয়ালখালীবাসী ভালভাবেই অবগত আছেন।আলাপ কালে তিনি জানান,১৯৯২ থেকে অদ্যাবধি চট্টগ্রাম বন্দরের ট্রেড ইউনিয়ন তথা শ্রম রাজনীতির সাথে জড়িত।চট্টগ্রাম বন্দরের ট্রেড ইউনিয়নের ১৯৯২ সালের নির্বাচনে সিনয়র সহ-সাঃ সম্পাদক পরবর্তী ১৯৯৮ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত ০৩ টি নির্বাচনে পরপর ৩বা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে হ্যাট্রিক বিজয় অর্জন করে ২০১৬ সাল পর্যন্ত সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করে। বিগত ২০০৯ সালে চট্টগ্রাম বন্দরের ২২টি ট্রেড ইউনিয়ন সরকার কর্তৃক জাতীয় সংসদে আইন করে বিলুপ্ত করার পর ব্যবহারকারী মালিকদের অধীনে কর্মরত শ্রমিক-কর্মচারীদের জন্য গঠিত ও ২০১৫ সালে সরকারী রেজিষ্ট্রেশন প্রাপ্ত একমাত্র ট্রেড ইউনিয়ন “চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারকারী শ্রমিক-কর্মচারী লীগ সিবিএ রেজিঃ নং-চট্র-২৭৪৭ এর ২০১৭ সাল থেকে অদ্যাবধি সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন সে। অন্যদিকে সাংগঠনিক দক্ষতা ও সামাজিক উন্নয়ন মূলক কর্মের স্বীকৃতি স্বরুপ ” হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক পুরস্কারে ভূষিত হন। পাশাপাশি তিনি বোয়ালখালীচরখিজিরপুরস্হ মীর মোহাম্মদ নুর নাহার জামে মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা ও গাউছিয়া তৈয়বিয়া ছালে-রাবিয়া মাদ্রাসা ও হেফজখানা পরিচালনা কমিটির সভাপতি এবং হাজী আবুল হোসেন নুর নাহার উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির জেলা প্রশাসক কর্তৃক মনোনীত সদস্য। তা ছাড়া সে জাতীয় শ্রমিকলীগ চট্টগ্রাম মহানগরের অন্তর্ভুক্ত বেসিক ইউনিয়ন সমন্বয় পরিষদের যুগ্ম- আহবায়ক হিসেবে দায়িত্বরত ।সম্ভব্য ভাইস-চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোহাম্মদ মীর নওশাদজানান, আমি দীর্ঘ দিন থেকে এ উপজেলার সাধারণ মানুষের পাশে আছি। আমি যেহেতু সব সময় জনগণের পাশে আছি তাই আমার জানা আছে জনগণের বরাদ্ধ কিভাবে জনগণের হাতে পৌছাতে হয়। তাই আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে আমাকে নির্বাচিত করবে সাধারণ মানুষ এটাই আমার বিশ্বাস।তিনি বলেন, দেশ, মাটি ও মানুষের কল্যাণে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করে করি। পাশাপাশি যে কোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় সবসময়ই মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছি। আসন্ন বোয়াল খালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনি বিজয়ী হলে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে বোয়াল খালী উপজেলাকে একটি মডেল ও স্মার্ট উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি সমাজের সর্বস্তরের মানুষের দোয়া, আশির্বাদ ও সমর্থন কামনা করেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে জেলা আওয়ামীঃ রাজনীতিতে বিভক্তি হওয়ার আশঙ্কা

চট্টগ্রাম বোয়াল খালী উপজেলা নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান শ্রমিক নেতা মীর নওশাদ

আপডেট : ০৪:২০:০৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ মার্চ ২০২৪

শাওন আমিন ।।

আসন্ন চট্গ্রামের বোয়ালখালি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান চরখিজিরপুর আওয়ামিলীগের প্রতিষ্টাতা সভাপতি,মরহুম মীর মোহাম্মদের সুযোগ্য পুত্র বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা মোহাম্মদ মীর নওশাদ।তিনি আগামী বোয়াল খালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন ।বিগত দিনে নিজ উদ্যোগে উপজেলার অসহায় দুঃস্থ মানুষদের সহায়তা করে আসছেন তিনি সব সময় অসহায় মানুষের পাশে ছিলেন।আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস-চেয়ারম্যান পদে এখন পর্যন্ত সম্ভাব্য কয়েকজন প্রার্থীর মধ্যে সাধারণ ভোটারদের মাঝে আলোচনার রয়েছেন তিনি।তাছাড়া তিনি নিজ এলাকায়একমাত্র সম্ভাব্য প্রার্থী থাকায় অন্য সবার চাইতে ভোটের মাঠে সুবিধাজনক অবস্থানে থাকবেন বলে ধারণা করছেন সাধারণ জনগণ।বিশিষ্ট শ্রমিক নেতা মোহাম্মদ মীর নওশাদের জীবনবৃত্তান্তে দেখা যায়, বোয়ালখালী উপজেলার সাবেক ০২ নং পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের ‘সি’ ওয়ার্ড তথা- গ্রাম- চরখিজিরপুর বর্তমানে প্রস্তাবিত চরখিজিরপুর ইউনিয়ন তার জম্নস্হান,চট্টগ্রাম সিটি কলেজ হতে শিক্ষা জীবন সমাপ্তি করে জড়িয়ে পরেন সামাজিক কর্মকান্ডে। তিনি

বিগত ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে ০২ নং পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ছিলেন, চেয়ারম্যানের মৃত্যু জনিত কারণে পূনরায় ২০০৩ সালে অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনেও চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ছিলেন কিন্তু ফলাফলের বিষয়টি সংগত কারণে তিনি নির্বাচিত না হলেও বিষয়টা ০২ পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়নের জনসাধারণ ও বোয়ালখালীবাসী ভালভাবেই অবগত আছেন।আলাপ কালে তিনি জানান,১৯৯২ থেকে অদ্যাবধি চট্টগ্রাম বন্দরের ট্রেড ইউনিয়ন তথা শ্রম রাজনীতির সাথে জড়িত।চট্টগ্রাম বন্দরের ট্রেড ইউনিয়নের ১৯৯২ সালের নির্বাচনে সিনয়র সহ-সাঃ সম্পাদক পরবর্তী ১৯৯৮ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত ০৩ টি নির্বাচনে পরপর ৩বা সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে হ্যাট্রিক বিজয় অর্জন করে ২০১৬ সাল পর্যন্ত সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করে। বিগত ২০০৯ সালে চট্টগ্রাম বন্দরের ২২টি ট্রেড ইউনিয়ন সরকার কর্তৃক জাতীয় সংসদে আইন করে বিলুপ্ত করার পর ব্যবহারকারী মালিকদের অধীনে কর্মরত শ্রমিক-কর্মচারীদের জন্য গঠিত ও ২০১৫ সালে সরকারী রেজিষ্ট্রেশন প্রাপ্ত একমাত্র ট্রেড ইউনিয়ন “চট্টগ্রাম বন্দর ব্যবহারকারী শ্রমিক-কর্মচারী লীগ সিবিএ রেজিঃ নং-চট্র-২৭৪৭ এর ২০১৭ সাল থেকে অদ্যাবধি সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন সে। অন্যদিকে সাংগঠনিক দক্ষতা ও সামাজিক উন্নয়ন মূলক কর্মের স্বীকৃতি স্বরুপ ” হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী ও শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক পুরস্কারে ভূষিত হন। পাশাপাশি তিনি বোয়ালখালীচরখিজিরপুরস্হ মীর মোহাম্মদ নুর নাহার জামে মসজিদের প্রতিষ্ঠাতা ও গাউছিয়া তৈয়বিয়া ছালে-রাবিয়া মাদ্রাসা ও হেফজখানা পরিচালনা কমিটির সভাপতি এবং হাজী আবুল হোসেন নুর নাহার উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির জেলা প্রশাসক কর্তৃক মনোনীত সদস্য। তা ছাড়া সে জাতীয় শ্রমিকলীগ চট্টগ্রাম মহানগরের অন্তর্ভুক্ত বেসিক ইউনিয়ন সমন্বয় পরিষদের যুগ্ম- আহবায়ক হিসেবে দায়িত্বরত ।সম্ভব্য ভাইস-চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোহাম্মদ মীর নওশাদজানান, আমি দীর্ঘ দিন থেকে এ উপজেলার সাধারণ মানুষের পাশে আছি। আমি যেহেতু সব সময় জনগণের পাশে আছি তাই আমার জানা আছে জনগণের বরাদ্ধ কিভাবে জনগণের হাতে পৌছাতে হয়। তাই আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান হিসাবে আমাকে নির্বাচিত করবে সাধারণ মানুষ এটাই আমার বিশ্বাস।তিনি বলেন, দেশ, মাটি ও মানুষের কল্যাণে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ বোধ করে করি। পাশাপাশি যে কোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় সবসময়ই মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছি। আসন্ন বোয়াল খালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনি বিজয়ী হলে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে বোয়াল খালী উপজেলাকে একটি মডেল ও স্মার্ট উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি সমাজের সর্বস্তরের মানুষের দোয়া, আশির্বাদ ও সমর্থন কামনা করেন।