ঢাকা ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চলন্ত ট্রাকের নিচে ঝাপ দিয়ে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

আমির হোসেন, ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ

ঝালকাঠির নলছিটিতে ট্রাকের নিচে ঝাপ দিয়ে মো. আলতাফ হোসেন মোল্লা (৬৫) নামে এক মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধের আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (৯ মার্চ) বেলা ১১ টার দিকে নলছিটি উপজেলার সিদ্ধকাঠি ইউনিয়নের ফুলতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আলতাফ হোসেন ফুলহরী গ্রামের মৃত ওয়াজেদ আলী মোল্লার ছেলে।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নলছিটি থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) রমনি কান্তি মিস্ত্রী।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বেলা ১১ টার দিকে রাস্তায় চলন্ত একটি ট্রাকের নিচে নিজেই ঝাঁপ দেয়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী জানান, নিহত আলতাফ হোসেনের তিন ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। আলতাফ হোসেন মানসিক ভারসাম্যহীন থাকায় তাদের অনেক সময় বিরক্ত হতো। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রায়ই বৃদ্ধকে মারধর করতো। গতকাল রাতে তাকে মারধর করার কারণেই নিজেই চলন্ত গাড়ির নিচে চাপা পড়ে।

মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে নিহত আলতাফ হোসেনের ছেলে বেল্লাল হোসেন জানান, আমার বাবা মানসিক ভারসাম্যহীন। তিনি সকালে গোসল করার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে রাস্তায় যান। পরে শুনি চলন্ত ট্রাকের নিচে নিজেই ঝাপ দিয়েছে।

সিদ্ধকাঠি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী জেসমিন বলেন, আমি একটা স্কুলের অনুষ্ঠানে আছি। অনুষ্ঠান শেষ হলে তাদের বাড়িতে যাবো। তবে বৃদ্ধকে তার ছেলেরা প্রায়ই মারধর করতো বলে এলাকার মানুষ আমাকে জানায়। এছাড়া ছেলের অত্যাচারে চলন্ত ট্রাকের নিচে ঝাপ দিয়ে মৃত্যুর হয় বলে এলাকার মানুষ বলাবলি করে। আমি ঘটনা স্থানে গিয়ে বিষয়টা ভালো করে খোঁজ নিয়ে দেখবো।

নলছিটি থানার ওসি মো. মুরাদ আলী বলেন, খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে জেলা আওয়ামীঃ রাজনীতিতে বিভক্তি হওয়ার আশঙ্কা

চলন্ত ট্রাকের নিচে ঝাপ দিয়ে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

আপডেট : ০৮:০৮:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ মার্চ ২০২৪

আমির হোসেন, ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ

ঝালকাঠির নলছিটিতে ট্রাকের নিচে ঝাপ দিয়ে মো. আলতাফ হোসেন মোল্লা (৬৫) নামে এক মানসিক ভারসাম্যহীন বৃদ্ধের আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে।

শনিবার (৯ মার্চ) বেলা ১১ টার দিকে নলছিটি উপজেলার সিদ্ধকাঠি ইউনিয়নের ফুলতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত আলতাফ হোসেন ফুলহরী গ্রামের মৃত ওয়াজেদ আলী মোল্লার ছেলে।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নলছিটি থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) রমনি কান্তি মিস্ত্রী।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বেলা ১১ টার দিকে রাস্তায় চলন্ত একটি ট্রাকের নিচে নিজেই ঝাঁপ দেয়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকাবাসী জানান, নিহত আলতাফ হোসেনের তিন ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। আলতাফ হোসেন মানসিক ভারসাম্যহীন থাকায় তাদের অনেক সময় বিরক্ত হতো। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রায়ই বৃদ্ধকে মারধর করতো। গতকাল রাতে তাকে মারধর করার কারণেই নিজেই চলন্ত গাড়ির নিচে চাপা পড়ে।

মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করে নিহত আলতাফ হোসেনের ছেলে বেল্লাল হোসেন জানান, আমার বাবা মানসিক ভারসাম্যহীন। তিনি সকালে গোসল করার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে রাস্তায় যান। পরে শুনি চলন্ত ট্রাকের নিচে নিজেই ঝাপ দিয়েছে।

সিদ্ধকাঠি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী জেসমিন বলেন, আমি একটা স্কুলের অনুষ্ঠানে আছি। অনুষ্ঠান শেষ হলে তাদের বাড়িতে যাবো। তবে বৃদ্ধকে তার ছেলেরা প্রায়ই মারধর করতো বলে এলাকার মানুষ আমাকে জানায়। এছাড়া ছেলের অত্যাচারে চলন্ত ট্রাকের নিচে ঝাপ দিয়ে মৃত্যুর হয় বলে এলাকার মানুষ বলাবলি করে। আমি ঘটনা স্থানে গিয়ে বিষয়টা ভালো করে খোঁজ নিয়ে দেখবো।

নলছিটি থানার ওসি মো. মুরাদ আলী বলেন, খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।