ঢাকা ০৭:৪৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হরিপুরে সড়ক নির্মানে অনিয়ম।। এম পি’র হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী

হরিপুর উপজেলা প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার ১নং গেদুড়া ইউনিয়নের গেরুয়াডাঙ্গী গ্রামের রাস্তা অর্থাৎ আমগাঁও থেকে চাঁপদা বাজারের পাশ দিয়ে যে রাস্তাটি রয়েছে উক্ত রাস্তাটি মেরামতে অনিয়মের অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলা জানা যায়, এই রাস্তাটি দিয়ে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ২/৩ হাজার মানুষের যাতায়াত। সারা বছর রাস্তাটি দিয়ে বিভিন্ন মোটর‍যান চলাচলের পাশাপাশি, আবাদি মৌসুমে বিশেষ করে ধান, ভুট্টা এবং গমের সময় বাইরে থেকে ভারি ট্রাকগুলো যাতায়াত করে থাকে। এই রাস্তাটি ১ নং, ২ নং এবং ৩ নং ইউনিয়নের একটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা। দীর্ঘ এই রাস্তাটির মেরামতের কাজ কিছুদিন পূর্বেই শুরু হয়েছে। কিন্তু এলাকাবাসীর অভিযোগ রাস্তাটি মেরামত করার নামে চরম দূর্ণীতি এবং অনিয়ম লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তারা বলেন, রাস্তায় বালুর বদলে মাটির ব্যবহার হচ্ছে, ইটের খোয়ার ব্যবহার না করে কর্তৃপক্ষ ইটের রাবিশ ব্যবহার করে রাস্তা মেরামত করছেন।

তারা আরো বলেন, বালুর বদলে মাটি এবং ইটের রাবিশ ব্যবহারের ফলে রাস্তা খুব একটা মজবুত হবে না। আমাদের বর্তমান সরকার রাস্তা মেরামতের জন্য যে পরিমাণ অর্থ বাজেট দিয়েছেন, তাতে রাস্তার কাজ অনেক ভালভাবে হওয়ার কথা থাকলেও, রাস্তাটি মেরামতের সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা দায়িত্বে অবহেলা করছেন এবং দূর্ণীতির আশ্রয় নিয়েছেন। নাহলে কেন তারা বালুর বদলে মাটি এবং ইটের খোয়ার বদলে রাবিশ ব্যবহার করবেন?

সরজমিনে গিয়ে এলাকাবাসীর অভিযোগের সত্যতা যাচাই করে আমরা দেখতে পাই, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা রাস্তাটিতে যেসব বালু ব্যবহার করছেন তা মূলত লাল মাটিকে কর্তৃপক্ষ বালুর নামে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে পাশাপাশি, ইটের খোয়ার বদলে সর্বনিম্ন কোয়ালিটি সম্পন্ন ইটের রাবিশ ব্যবহার করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে ঠিকাদারকে বার বার মুঠো ফোনে কল দিলেও ঠিকাদার আলহাজ্ব আবদুল বশির কল ধরেন নি।

স্থানীয়রা বলেন, তাদের দীর্ঘদিনের কাঙ্ক্ষিত রাস্তাটির মেরামতের কাজে এমন দূর্ণীতি এবং অনিয়ম মেনে নেওয়ার মত নয়। তারা আমাদের ঠাকুরগাঁও-২ আসনের বর্তমান এমপি মহোদয় জনাব, মোঃ মাজহারুল ইসলাম সুজন স্যারের কাছে দাবি জানান যে, অতিশীঘ্রই এই গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি মেরামতের অনিয়মের সাথে যেসব সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনা হোক এবং “আমগাঁও থেকে চাপদা” রাস্তাটি উপজেলার অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার মত কোন প্রকার অনিয়ম ছাড়া মেরামত করা হোক।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে জেলা আওয়ামীঃ রাজনীতিতে বিভক্তি হওয়ার আশঙ্কা

হরিপুরে সড়ক নির্মানে অনিয়ম।। এম পি’র হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী

আপডেট : ১০:৫১:১২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

হরিপুর উপজেলা প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার ১নং গেদুড়া ইউনিয়নের গেরুয়াডাঙ্গী গ্রামের রাস্তা অর্থাৎ আমগাঁও থেকে চাঁপদা বাজারের পাশ দিয়ে যে রাস্তাটি রয়েছে উক্ত রাস্তাটি মেরামতে অনিয়মের অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলা জানা যায়, এই রাস্তাটি দিয়ে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ২/৩ হাজার মানুষের যাতায়াত। সারা বছর রাস্তাটি দিয়ে বিভিন্ন মোটর‍যান চলাচলের পাশাপাশি, আবাদি মৌসুমে বিশেষ করে ধান, ভুট্টা এবং গমের সময় বাইরে থেকে ভারি ট্রাকগুলো যাতায়াত করে থাকে। এই রাস্তাটি ১ নং, ২ নং এবং ৩ নং ইউনিয়নের একটি গুরুত্বপূর্ণ রাস্তা। দীর্ঘ এই রাস্তাটির মেরামতের কাজ কিছুদিন পূর্বেই শুরু হয়েছে। কিন্তু এলাকাবাসীর অভিযোগ রাস্তাটি মেরামত করার নামে চরম দূর্ণীতি এবং অনিয়ম লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তারা বলেন, রাস্তায় বালুর বদলে মাটির ব্যবহার হচ্ছে, ইটের খোয়ার ব্যবহার না করে কর্তৃপক্ষ ইটের রাবিশ ব্যবহার করে রাস্তা মেরামত করছেন।

তারা আরো বলেন, বালুর বদলে মাটি এবং ইটের রাবিশ ব্যবহারের ফলে রাস্তা খুব একটা মজবুত হবে না। আমাদের বর্তমান সরকার রাস্তা মেরামতের জন্য যে পরিমাণ অর্থ বাজেট দিয়েছেন, তাতে রাস্তার কাজ অনেক ভালভাবে হওয়ার কথা থাকলেও, রাস্তাটি মেরামতের সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা দায়িত্বে অবহেলা করছেন এবং দূর্ণীতির আশ্রয় নিয়েছেন। নাহলে কেন তারা বালুর বদলে মাটি এবং ইটের খোয়ার বদলে রাবিশ ব্যবহার করবেন?

সরজমিনে গিয়ে এলাকাবাসীর অভিযোগের সত্যতা যাচাই করে আমরা দেখতে পাই, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা রাস্তাটিতে যেসব বালু ব্যবহার করছেন তা মূলত লাল মাটিকে কর্তৃপক্ষ বালুর নামে চালিয়ে দেওয়া হয়েছে পাশাপাশি, ইটের খোয়ার বদলে সর্বনিম্ন কোয়ালিটি সম্পন্ন ইটের রাবিশ ব্যবহার করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে ঠিকাদারকে বার বার মুঠো ফোনে কল দিলেও ঠিকাদার আলহাজ্ব আবদুল বশির কল ধরেন নি।

স্থানীয়রা বলেন, তাদের দীর্ঘদিনের কাঙ্ক্ষিত রাস্তাটির মেরামতের কাজে এমন দূর্ণীতি এবং অনিয়ম মেনে নেওয়ার মত নয়। তারা আমাদের ঠাকুরগাঁও-২ আসনের বর্তমান এমপি মহোদয় জনাব, মোঃ মাজহারুল ইসলাম সুজন স্যারের কাছে দাবি জানান যে, অতিশীঘ্রই এই গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাটি মেরামতের অনিয়মের সাথে যেসব সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনা হোক এবং “আমগাঁও থেকে চাপদা” রাস্তাটি উপজেলার অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ রাস্তার মত কোন প্রকার অনিয়ম ছাড়া মেরামত করা হোক।