ঢাকা ১০:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ সদস্য গ্রেফতার

হাজী জাহিদ,  নরসিংদী প্রতিনিধি :

নরসিংদীর রায়পুরায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে এক পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে। অভিযোগের ভিত্তিতে নির্যাতিতার করা মামলায় ইমন (২৮) নামের পুলিশ কনস্টেবলকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাফায়েত হোসেন পলাশ।

ইমন কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম থানায় পুলিশ সদস্য হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

তিনি রায়পুরা উপজেলার বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর নগর গ্রামের মাহে আলমের ছেলে।
থানায় দায়ের কারা অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, প্রায় ১৮ মাস পূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের পরিচয় হয় এবং পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ভৈরব এলাকার বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে। পরবর্তীতে চট্টগ্রামে বেড়ানোর কথা বলে শারীরিক সম্পর্ক করা হয়।

সর্বশেষ রবিবার রাত ১টার দিকে রায়পুরার মাহমুদাবাদ এলাকায় ভুক্তভোগী তরুণীর বাড়ি থেকে ওই পুলিশ সদস্যকে ধর্ষণের চেষ্টা অভিযোগে এলাকাবাসী তাকে আটক করে থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করে।

পরে সোমবার সকালে ভুক্তভোগী তরুণী ধর্ষণের অভিযোগ এনে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

রায়পুরা থানার ওসি সাফায়েত হোসেন পলাশ বলেন, রবিবার রাত ১টার দিকে ভুক্তভোগী নারীর বাড়ি থেকে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য ইমনকে আটক করে পুলিশ থানায় নিয়ে আসে। সোমবার আমলী আদালতে তোলা হলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

ট্যাগস :
জনপ্রিয়

ঠাকুরগাঁওয়ে ৫ লাখ টাকা কুড়িয়ে পেয়ে মাইকিং করে ভাইরাল হওয়া সৌরভ গ্রেফতার

ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ সদস্য গ্রেফতার

আপডেট : ১২:৩৯:৪৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

হাজী জাহিদ,  নরসিংদী প্রতিনিধি :

নরসিংদীর রায়পুরায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে উঠেছে এক পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে। অভিযোগের ভিত্তিতে নির্যাতিতার করা মামলায় ইমন (২৮) নামের পুলিশ কনস্টেবলকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাফায়েত হোসেন পলাশ।

ইমন কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম থানায় পুলিশ সদস্য হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

তিনি রায়পুরা উপজেলার বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর নগর গ্রামের মাহে আলমের ছেলে।
থানায় দায়ের কারা অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, প্রায় ১৮ মাস পূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের পরিচয় হয় এবং পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ভৈরব এলাকার বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে। পরবর্তীতে চট্টগ্রামে বেড়ানোর কথা বলে শারীরিক সম্পর্ক করা হয়।

সর্বশেষ রবিবার রাত ১টার দিকে রায়পুরার মাহমুদাবাদ এলাকায় ভুক্তভোগী তরুণীর বাড়ি থেকে ওই পুলিশ সদস্যকে ধর্ষণের চেষ্টা অভিযোগে এলাকাবাসী তাকে আটক করে থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করে।

পরে সোমবার সকালে ভুক্তভোগী তরুণী ধর্ষণের অভিযোগ এনে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

রায়পুরা থানার ওসি সাফায়েত হোসেন পলাশ বলেন, রবিবার রাত ১টার দিকে ভুক্তভোগী নারীর বাড়ি থেকে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য ইমনকে আটক করে পুলিশ থানায় নিয়ে আসে। সোমবার আমলী আদালতে তোলা হলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।